ChannelPadma Privacy Policy

সালথায় মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে হামলার নেপথ্যে উপজেলা চেয়ারম্যান !

সালথায় মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে হামলার নেপথ্যে উপজেলা চেয়ারম্যান !
CHANNEL PADMA bd 2022

মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে হামলার নেপথ্যে উপজেলা চেয়ারম্যান !

ফরিদপুরের সালথায় বীর মুক্তিযোদ্ধা এলেম শেখের বাড়িতে বর্বরচিত হামলা-ভাংচুর ও লুটপাটের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
কর্মসূচী চলাকালে বক্তারা অভিযোগ করেন হামলার নেপথ্যে রয়েছেন উপজেলা চেয়ারম্যান মো: ওয়াদুদ মাতুব্বর।

সোমবার (১১ জুলাই) সকাল ১১ টার দিকে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড সালথা উপজেলা শাখার আয়োজনে সালথা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়।

কর্মসূচিতে বীর মুক্তিযোদ্ধাবৃন্দ, রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী ও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

এ সময় বীর মুক্তিযোদ্ধা এলেম শেখের বাড়িতে হামলা কেন, জাতির বিবেক আজ কোথায় ? মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে হামলাকারীর ফাঁসি চাই, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চাই ইত্যাদি শ্লোগানে মুখরিত ছিল পুরো এলাকা।

সালথা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু জাফর, সালথা উপজেলা পরিষদের সাবেক

চেয়ারম্যান ওয়াহিদুজ্জামান, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড সালথা উপজেলা শাখার সভাপতি মাহবুব হোসেন, সাধারণ সম্পাদক জানই মারজানা শারমিন, সাংগঠনিক সম্পাদক

ওয়াহিদ মোল্লা, সালথা উপজেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি ফিরোজ খান রাজ, হুসাইন আলী, গট্টি ইউনিয়নের শাহ জাহান খান, মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান মো: খোরশেদ খান, বীর মুক্তিযোদ্ধা এলেম শেখের স্ত্রী জয়গুন বিবি ও মেয়ে আমেনা বেগম প্রমূখ।

কর্মসূচী চলাকালে বক্তারা বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা এলেম শেখের বাড়িতে বর্বরচিত হামলা-ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনার মামলার এজাহারে উল্লেখিত প্রধান আসামী সালথা

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো: ওয়াদুদ মাতুব্বর ও ছায়েম মিয়া ওরফে টিটন মিয়াসহ ৩৬ জনকে আসামী করে সালথা থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো আসামী গ্রেফতার না হওয়ায় মানববন্ধনে বক্তাগণ ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

বক্তারা আরো বলেন, এই হামলার সাথে জড়িত সালথা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো: ওয়াদুদ মাতুব্বর ও ছায়েম মিয়া ওরফে টিটন মিয়াসহ সকল আসামীদের আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে আটক করে আইনের আওতায় আনার জন্য প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ জানান।

তা না হলে সারাদেশের মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের নিয়ে বৃহত্তর আকারে কর্মসূচি দেওয়া হবে।

অভিযোগ অস্বীকার করে সালথা উপজেলা চেয়ারম্যান মো: ওয়াদুদ মাতুব্বর বলেন, মুক্তিযোদ্ধার উপর হামলার সাথে আমি জড়িত না। তবে আমার বিরুদ্ধে আজ উপজেলায় মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে মানববন্ধন করেছে। আমার নামে মামলা হয়েছে, আমি জানি না।

এ বিষয়ে সালথা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: শেখ সাদিক বলেন, গত ৯ জুলাই রাতে বীর মুক্তিযোদ্ধা এলেম শেখের বাড়িতে বর্বরচিত হামলা-ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনার মামলা হয়েছে।

এখনো কোন আসামীকে আমরা গ্রেফতার করতে পারি নাই। আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার (৮ জুলাই) সন্ধ্যায় উপজেলার গট্টি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু জাফর মোল্যার উপর দুর্বৃত্তরা হামলা করে। এসময় তিনি দৌড়ে বীর

মুক্তিযোদ্ধা এলেম শেখের বাড়িতে আশ্রয় নিলে সালথা উপজেলা চেয়ারম্যান মো: ওয়াদুদ মাতুব্বরের নির্দেশে হামলাকারীরা বীর মুক্তিযোদ্ধা এলেম শেখের বসতবাড়ী ভাংচুর ও লুটপাট চালায় বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

এছাড়া এলেম শেখ ও তার স্ত্রী জয়গুন বেগমকে মারপিট করলে তারা আহত হন বলে অভিযোগ ওই মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের। পরবর্তীতে ঘটনার বিষয় উল্লেখ করে বীর

মুক্তিযোদ্ধা এলেম শেখের স্ত্রী জয়গুন বেগম বাদী হয়ে সালথা উপজেলা চেয়ারম্যান মো: ওয়াদুদ মাতুব্বরসহ মোট ৩৬ জনকে আসামী করে সালথা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। আহত জাফর মোল্যা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে হামলার নেপথ্যে উপজেলা চেয়ারম্যান !

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.