ChannelPadma Privacy Policy

সালথায় প্রভাবশালীর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করলেন ইউএনও

সালথায় প্রভাবশালীর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করলেন ইউএনও
CHANNEL PADMA bd 2022

সালথায় প্রভাবশালীর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করলেন ইউএনও : ফরিদপুরের সালথা বাজারে সরকারি হালট দখল করে নির্মিত অবৈধ স্থাপনায় উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।

অভিযান পরিচালনা করেন সালথা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা: তাছলিমা আকতার। অভিযানকালে প্রায় ২০ বছর যাবত সরকারি হালট দখল করে অবৈধভাবে নির্মিত স্থাপনা উচ্ছেদ করেন তিনি।

শনিবার (৬ আগস্ট) বিকাল ৫টা থেকে বিকাল ৬টা পর্যন্ত সালথা বাজারের হাইস্কুল রোড সংলগ্ন ৩৩নং দরজা পুরুড়া মৌজার সালথা বাজারের ৩৩নং দরজা-পুরুরা মৌজার হালট শ্রেণির ২৯ নম্বর দাগে স্থাপিত অবৈধ দোকান উচ্ছেদ করা হয়। এ সময় সার্ভেয়ার, তহশিলদার, সালথা থানার পুলিশ, স্থানীয় সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সালথা বাজারের ৩৩নং দরজা-পুরুরা মৌজার হালট শ্রেণির ২৯ নম্বর দাগের সম্পত্তি দখল করে স্থানীয় ভাওয়াল গ্রামের মৃত রহমান মুন্সির ছেলে জাফর মুন্সি দীর্ঘদিন ধরে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিলেন

সালথার সাবেক ইউএনও মোহাম্মদ হাসিব সরকার উক্ত দোকান ঘর বন্ধ করে দেন। দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর জাফর মুন্সী পুনরায় নিজের ইচ্ছা মাফিক দোকান খুলে ভাড়া প্রদান করেন।

স্থানীয় এলাকাবাসীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে শনিবার উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেন সালথা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা: তাছলিমা আকতার।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়, প্রায় ২০ বছর ধরে সরকারি হালট দখল করে দোকান ঘর দেওয়ায় আমাদের চলাফেরা খুবই কষ্টকর হয়ে পড়েছিল।

আমরা এলাকাবাসী প্রশাসনকে অনুরোধ জানিয়েছি সরকারি হালটটি থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে পূনরায় হালটটি চলাচল উপযোগী করার জন্য। একই সাথে হালটটি উদ্ধার করার জন্য আমরা সালথা উপজেলা প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানাই

এ বিষয়ে নির্মাণকারী ঘর মালিক জাফর মুন্সী বলেন, এটা আমার ক্রয়কৃত সম্পত্তি। এখানে কিছু সরকারি ও কিছু মালিকানা সম্পত্তি রয়েছে। আমার দলিল ও পিট দলিল রয়েছে। আমি সালথার সাবেক ইউএনও সারের অনুমতি নিয়েই পুনরায় দোকান খুলেছি।

এ বিষয়ে সালথা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা: তাছলিমা আকতার বলেন, ম্যাপ দেখে সার্ভেয়ার দ্বারা পরিমাপ করে দেখা যায় সরকারি হালটের উপর ঘর নির্মানের ফলে বাজার দিয়ে চলাফেরা করতে মানুষের খুব কষ্ট হয়।

এলাকাবাসীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে প্রশাসন উক্ত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে। পর্যায়ক্রমে বেদখল হওয়া সব সরকারি জমি উদ্ধার করা হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.