বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ০৬:৪৫ পূর্বাহ্ন

ভাঙ্গায় ফের মাইকিং করে দুই পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ১০

পদ্মা ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : বুধবার, ২৩ মার্চ, ২০২২

ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলায় মাইকে ঘোষণা দিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বাজারের বেশকিছু দোকান ও বসতবাড়ি। বুধবার (২৩ মার্চ) সকালে উপজেলার ঘারুয়া বাজারে ঘারুয়া গ্রামের দুই পক্ষের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) বেলা সাড়ে ১১টায় ঘারুয়া গ্রামের চুন্নু ফকিরের ছেলে ইমন ফকির (১৮) সিগারেট ধরাতে দোকানদার রমজান মাতুব্বরের কাছে গ্যাসলাইট চান। দোকানদার লাইট না দেওয়ায় বাগবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে হাতাহাতি হলে স্থানীয়রা দুই জনকে শান্ত করে মীমাংসা করে দেন।

বিকালে রমজান মাতুব্বর বাজারে গেলে ইমন ফকির হকিস্টিক দিয়ে এলোপাতাড়ি মারধর করেন। বিষয়টি নিয়ে বুধবার সকাল ৭টায় স্থানীয় মুরুব্বিরা দুই পক্ষকে ডেকে সালিশ বৈঠকে বসেন। সালিশ চলাকালীন কয়েকজন ছাইদুল মোল্লার দোকানসহ বেশ কয়েকটি ঘর ভাঙচুর করে। এরই ধারাবাহিকতায় ঘারুয়া গ্রামের দুই পক্ষ মাইকিং করে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে একে-অপরের ওপর হামলা চালায়। কয়েক ঘণ্টা চলা সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ সময় ঘারুয়া বাজারের কয়েকটি দোকান ও বসতবাড়ি ভাঙচুর করা হয়। সংঘর্ষের খবর পেয়ে ভাঙ্গা থানা পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

ভাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম রেজা জানান, বর্তমানে এলাকার পরিবেশ শান্ত। এ ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর