বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ০৭:৩০ পূর্বাহ্ন

বিয়ের পরেও রিসোর্টে প্রেমিকার সঙ্গে সময় কাটিয়েছেন বিল গেটস

পদ্মা ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৩ মে, ২০২১

এই মুহূর্তে সারাবিশ্বের আলোচিত বিষয় বিল গেটস ও মেলিন্ডা গেটসের বিবাহবিচ্ছেদ।  প্রণয় থেকে মেলিন্ডার সঙ্গে পরিণয় বিলের। ২৭ বছর পরে যখন এমন বিয়ে ভেঙে যায় তখন সেটা অবাক করার বিষয় বটে। বেশ কিছু বছর আগে, বিল গেটস যখন বিবাহিত; সম্প্রতি বিচ্ছেদ হয়ে যাওয়া স্ত্রীকে রেখে তখনও নাকি বিচ্ছেদ হয়ে যাওয়া প্রেমিকার সঙ্গে একটি রিসোর্টে সময় কাটিয়েছিলেন বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ ধনী বিল। ১৯৯৭ সালে টাইম ম্যাগাজিনকে দেওয়া বিল গেটসের এ তথ্য বৃহস্পতিবার জানিয়েছে ফক্স নিউজ।

সাত বছর প্রেম করার পর ১৯৯৪ সালে হাওয়াই দ্বীপে বিয়ে করেন বিল ও মেলিন্ডা। এই দম্পতির ঘরে তিন সন্তান রয়েছে। মেলিন্ডাকে বিয়ের আগে ব্যবসায়ী নেতা আন উইনব্লাডের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন বিল। ১৯৮৪ থেকে ৮৭ সাল পর্যন্ত টিকেছিল তাদের এই প্রেম। তবে যোগাযোগটা রয়েই যায়। নিউ ইয়র্ক পোস্ট বলছে, বিয়ের পরও নর্থ ক্যারোলিনায় সমুদ্রপাড়ের একটি রিসোর্টে সময় কাটিয়েছেন বিল ও আন। বিলকে আন মেলিন্ডাকে বিয়ের ব্যাপারে উৎসাহও দিয়েছিলেন।

রিসোর্টে সময় কাটানোর কথা স্বীকার করে টাইমকে আন উইনব্লাড বলেন, তখন বিশ্ব সম্পর্কে আমাদের চিন্তাভাবনা ও আমাদের সম্পর্ক নিয়ে কথা হয়েছিল।

আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমগুলোকে একাধিক সূত্র জানিয়েছে, ক্যারোলিনার করোল্লায় ক্যাসেল সুইন রিসোর্টের চারটি শয়নকক্ষ ভাড়া করেছিলেন বিল গেটস। সমুদ্রপাড়ের এই কক্ষগুলো ছিল সমুদ্রের দিকে মুখ করা। কবে তারা এই রিসোর্টে সময় কাটিয়েছন তা নিশ্চিত করে জানা যায়নি। সংবাদ মাধ্যমকে আন বলেন, আমার ওপর বিলের প্রভাব পড়েছিল।

মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসের সঙ্গে মেলিন্ডার পরিচয় হয় মাইক্রোসফট অফিসেই। ১৯৮৭ সালে মেলিন্ডা মাইক্রোসফটে যোগ দেন প্রডাক্ট ম্যানেজার হিসেবে। ওই বছর তারা নিউ ইয়র্কে একটি বিজনেস ডিনারে মিলিত হয়েছিলেন। পরিচয়ের সাত বছর পর ১৯৯৪ সালে তারা বিয়ে করেন।

সোমবার আচমকা খবর এলো বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ ধনী ও মাইক্রসফট কর্ণধার বিল গেটস ও তার স্ত্রী মেলিন্ডা গেটসের মধ্যে বিচ্ছেদ হয়ে গেছে। ২৭ বছর ঘর করার পর এই দম্পতির হঠাৎ বিচ্ছেদের ঘোষণা অবাক করেছে বিশ্ববাসীকে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তোলপাড় বয়ে যাচ্ছে। অনেকেরই প্রশ্ন এতদিন সংসার করার পর কেন তাদের মনে হলো আর একসঙ্গে পথচলা সম্ভব নয়? কী এমন ঘটেছে বিল ও মেলিন্ডার মধ্যে।

এই প্রশ্নের উত্তর এত দ্রুত ও সহজে জানা সম্ভব নয়। সরাসরি এই প্রশ্নের উত্তরও তাদের কাছ থেকে প্রত্যাশা করা ঠিক নয়। এছাড়া এ দুজন বিচ্ছেদসংক্রান্ত বিষয়ে ব্যাপক গোপনীয়তা অবলম্বন করেছেন।

সেসব প্রশ্নের উত্তরই হয়তো আসতে শুরু করেছে সামনে।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর