বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ০৭:৩৭ পূর্বাহ্ন

ফরিদপুরে টিসিবির কার্ড পাচ্ছে ৭৭ হাজার পরিবার

পদ্মা ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : শনিবার, ১৯ মার্চ, ২০২২

আসন্ন পবিত্র রমজান উপলক্ষে দেশব্যাপী নিম্ন আয়ের ১ কোটি পরিবারের জন্য সরকার কর্তৃক ভর্তুকি মুল্যে টিসিবির পণ্য বিক্রি করা হবে। এর আওতায় ফরিদপুর জেলায় উপকারভোগী হিসেবে ফ্যামিলি কার্ডের মাধ্যমে ৭৭ হাজার ৬০৫ টি পরিবারকে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। শুক্রবার (১৮ মার্চ) বিকেলে সার্কিট হাউজে অনুষ্ঠিত প্রেস ব্রিফিংয়ে ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকার এ তথ্য জানান।

প্রেস ব্রিফিংয়ে জেলা প্রশাসক অতুল সরকার জানান, ইতোপূর্বে করোনাকালে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ২৫শ’ টাকা এবং ভিজিডি ও ভিজিএফের তালিকাভুক্ত হতদরিদ্রদের তালিকাকে ভিত্তি করে ফ্যামিলি কার্ডের তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। প্রত্যেককে দুটি কার্ড দেয়া হবে। এগুলো দিয়ে ১৫ দিন অন্তর দুবার এসব পণ্য কিনতে পারবেন তারা।

এ সময় ফরিদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) দীপক কুমার রায়, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মো. লিটন আলী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এমদাদুল হক, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক, সিনিয়র সাংবাদিক পান্না বালা, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুল ইসলাম পিকুল, হারুন অনসারী, মঞ্জুয়ারা স্বপ্নাসহ সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, আগামী ২০ মার্চ ফরিদপুর জেলার ২৬টি স্পটে এসব পণ্য বিক্রি শুরু হবে। ফরিদপুরে টিসিবির ৬২ জন ডিলারের মাধ্যমে প্রতিটি পৌরসভা ও ইউনিয়ন সদরে ৩০ মার্চ পর্যন্ত চলবে এ পণ্য বিক্রি।

এ কর্মসূচীর আওতায় প্রতিটি পরিবার ৪৬০ টাকায় ২ লিটার তেল, ২ কেজি ডাল ও ২ কেজি চিনির একটি করে প্যাকেজ কিনতে পারবেন। প্রতিটি উপকারভোগী পরিবারের জন্য প্রস্তুতকৃত ফ্যামিলি কার্ড যার একটি উপকারভোগী ও অপরটি ডিলার এর নিকট সংরক্ষিত আছে। প্রত্যেকটি কার্ডে পণ্য সরবরাহের তারিখ ও স্থান উল্লেখ করা হয়েছে।

জেলার আলফাডাঙ্গা উপজেলায় মোট উপকার ভোগীর সংখ্যা ৫ হাজার ১২৬ জন এবং ডিলার ০৩ জন; ভাঙ্গা উপজেলায় মোট উপকার ভোগীর সংখ্যা ১১ হাজার ৩৯০ এবং ডিলার ১৩ জন; বোয়ালমারী উপজেলায় মোট উপকার ভোগীর সংখ্যা ৯ হাজার ৫০৪ জন এবং ডিলার ০৭ জন; সদরপুর উপজেলায় মোট উপকার ভোগীর সংখ্যা ৫ হাজার ৮৩৪ জন এবং ডিলার ০৫ জন; সালথা উপজেলায় মোট উপকার ভোগীর সংখ্যা ৬ হাজার ৪৪৫ জন, এবং ডিলার ০৭ জন; চরভদ্রাসন উপজেলায় মোট উপকার ভোগীর সংখ্যা ২ হাজার ৮৪১ জন এবং ডিলার ০৬ জন; মধুখালী উপজেলায় মোট উপকার ভোগীর সংখ্যা ৯ হাজার ২১৯ জন এবং ডিলার ০৬ জন; নগরকান্দা উপজেলায় মোট উপকার ভোগীর সংখ্যা ৮ হাজার ২০৭ জন এবং ডিলার ০৬ জন; ফরিদপুর সদর উপজেলায় মোট উপকার ভোগীর সংখ্যা ১৯ হাজার ০৩৬ জন এবং ডিলার ০৯ জন। জেলায় মোট উপকার ভোগীর সংখ্যা ৭৭ হাজার ৬০৫ জন এবং মোট ডিলারের সংখ্যা ৬২ জন।

জেলায় মোট বিতরণকৃতব্য পন্যের মধ্যে সয়াবিন তেল ১ লক্ষ ৫৫ হাজার ২০০ লিটার, চিনি ১ লক্ষ ৫৫ হাজার ২০০ মেট্রিক টন এবং মুশুর ডাল ১ লক্ষ ৫৫ হাজার ২০০ মেট্রিক টন রয়েছে। এ কার্যক্রম সফল ভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে ফরিদপুর জেলা প্রশাসন সকলের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেছে।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর