বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ০৭:৪২ পূর্বাহ্ন

ছাগল তাড়ানোয় মারধর, অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর গর্ভপাত

পদ্মা ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : শনিবার, ১৯ মার্চ, ২০২২

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলায় ছাগল তাড়ানোকে কেন্দ্র করে মারধরের শিকার ৩ মাসের অন্তঃসত্ত্বা বিথির গর্ভপাত হয়েছে। গুরুতর আহত অবস্থায় তিনি গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছেন। এ ঘটনায় বিথির মা হালিমা বেগম বাদী হয়ে ৩ জনকে আসামি করে গজারিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগের ভিত্তিতে একজনকে আটক করে শনিবার (১৯ মার্চ) দুপুরে মুন্সীগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করেছে পুলিশ। এর আগে গতকাল (শুক্রবার) বিকেলে এএসআই আজিজের নেতৃত্বে ভবেরচর কলেজ রোড এলাকায় অভিযান চালিয়ে বাবুল সরকারকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এএসআই আজিজ জানান, গত ১৪ মার্চ ছাগল তাড়ানোকে কেন্দ্র করে উপজেলার ভবেরচর গ্রামের বাবুল সরকারের ছেলে রানা সরকার অন্তঃসত্ত্বা বিথিকে মারপিট করে। পরে বিথির মা হালিমা বেগম, বাদী হয়ে তিনজনকে আসামি করে থানায় অভিযোগ করেন। উক্ত অভিযোগের প্রেক্ষিতে বাবুল সরকারকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

ভুক্তভোগী অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী বিথি বেগম বলেন, আমরা ভবেরচর কলেজ রোড এলাকার হাফিজ মিয়ার বাড়িতে দীর্ঘদিন ভাড়া থাকি। গত ১৪ মার্চ দুপুরে আমাদের ভাড়া বাড়ির উঠানে রোদে দেওয়া বরই নষ্ট করছিল প্রতিবেশী বাবুল সরকারের ছাগল। আমি বরইয়ের ওপর থেকে ছাগল তাড়িয়েছি বলে বাবুল সরকারের ছেলে রানা সরকার আমাকে প্রচুর মারধর করে ও তলপেটে কিল-ঘুষি মেরে আহত করে। উক্ত ঘটনায় আমার গর্ভের বাচ্চা গত ১৫ মার্চ ভবেরচর হাসপাতাল রোড এলাকার সেইফ লাইফ ডায়াগনোস্টিক সেন্টারে গর্ভপাত করা হয়।

এ ব্যাপারে বিথির বড় বোন স্মৃতি বলেন, ভাড়া বাড়ির উঠানে বরই শুকাতে রোদে দিয়েছিলাম। এ সময় বাবুল সরকারের ছাগল বরই নষ্ট করায় আমার বোন বিথি ছাগলটি তাড়িয়ে দেয়। পরে বাবুল সরকারের ছেলে রানা আমার বোনকে মারধর করে ও তলপেটে লাথি মারে। এ কারণে আমার বোনের গর্ভের বাচ্চা নষ্ট হয়ে গর্ভপাত হয়ে গেছে।

তিনি আরও বলেন, এখনো আমার বোনের অনেক রক্ত যাচ্ছে। ওকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। আমার বোনের আর কোনো বাচ্চা নেই। সবেমাত্র একটি বাচ্চা পেটে এসেছিল, তাও ওরা নষ্ট করে দিল।

গজারিয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রইছ উদ্দিন জানান, অন্তঃসত্ত্বা বিথিকে মারধর করার অভিযোগের ভিত্তিতে শুক্রবার বিকেলে বাবুল সরকারকে আটক করেছে পুলিশ। আসামি বাবুল সরকারকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর